‘হাক্কানীর আলোকে হামিবা ব্যবস্থাপনা ও আমার নেতৃত্ব’ শীর্ষক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

সংলাপ ॥ সূফী সাধক শেখ আবদুল হানিফ প্রতিষ্ঠিত, সূফী সাধক আনোয়ারুল হক আশীর্বাদপুষ্ট হাক্কানী মিশন বাংলাদেশ (হামিবা)’র ৩০ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপনে ‘হাক্কানীর আলোকে হামিবা ব্যবস্থাপনা ও আমার নেতৃত্ব’ শীর্ষক কর্মশালা গত ১০ মাঘ ১৪২৬, ২৪ জানুয়ারি ২০২০ শুক্রবার মিরপুর আস্তানা শরীফের জ্যোতিভবনের আক্তার উদ্দিন মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। 

সকাল ৯ টা ৩১ মিনিট থেকে হামিবা সদস্যদের রেজিস্ট্রেশন এবং সকাল ১০ টা ০১ মিনিটে হামিবা সাংস্কৃতিক একাডেমী পরিবেশিত জাতীয় বন্দনা সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী কর্মশালার সূচনা হয়। শুরুতেই এ বছর ১২ এপ্রিল আক্তারউদ্দিন মিলনায়তনে হামিবা পৃষ্ঠপোষকমন্ডলী, হামিবা ব্যবস্থাপনা সংসদ, মিরপুর আস্তানা শরীফ ও বাংলাদেশ হাক্কানী খানকা শরীফ (বাহাখাশ) কেন্দ্রীয় পর্ষদ-এর যৌথসভার সভাপতি সূফী সাধক শেখ আবদুল হানিফ- এঁর রেকর্ডকৃত গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য শোনানো হয়। সূচনা ও দিকনির্দেশনামূলক বক্তব্যে হামিবার নির্বাহী সভাপতি শাহ ড. আলাউদ্দিন আলন হামিবার ১০টি প্রকল্প সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন। তারপর হামিবা সভাপতি শাহ্ সূফী ড. মুহাম্মদ মেজবাহ উল ইসলাম কর্মশালা পরিচালনা করতে গিয়ে হামিবার পরিচিতি এবং লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য এবং ২০২০-২০২১ সালের জন্য          বিভিন্ন বিভাগের কর্মপরিকল্পনা ও কর্মপদ্ধতি তুলে ধরার জন্য বিভিন্ন বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকতাদের আহবান জানান।

হামিবা শিক্ষা বিভাগের কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেন হাক্কানী মিশন বিদ্যাপীঠ ও মহাবিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাসিমা করিম। হামিবা পরিচালক মো. রবিউল আলম জানান, এবার জেএসসি, পিইসিতে এবার বিদ্যাপীঠ থেকে শতভাগ পাশ করেছে। মিরপুর থানায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে এই বিদ্যাপীঠ তালিকার এক নম্বর স্থান অধিকার করেছে।

এরপর কর্মশালায় হামিবা তথ্য ও প্রযুক্তি বিভাগের পক্ষে সালেহ আল দ্বীন এবং হামিবা সংস্কৃতিক একাডেমীর কর্মপরিচিতি ও কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেন ডা. সুমাইয়া সুলতানা। হামিবা যুব উন্নয়ন বিভাগের পক্ষ থেকে এর সভাপতি শাহ ইমতিয়াজ আহমেদ, কুরআন গবেষণা প্রতিষ্ঠান ও আলোচনা কেন্দ্র-এর পক্ষে মোহাম্মদ আবদুল ওয়াহিদ, হাক্কানী মহিলা উন্নয়ন পরিষদ-এর পক্ষে শাহ্ আবেদা বানু তরু, সূফী সাধক আনোয়ারুল হক স্মারক কল্যাণ তহবিলের পক্ষে হারুন অর রশীদ, হাক্কানী আইন সহায়তা ও পরামর্শ কেন্দ্র-এর পক্ষে অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আবদুল ওয়াহিদ কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেন।  

মধ্যাহ্ন ভোজনের বিরতির পর হিসাব বিভাগের পক্ষে হামিবার কোষাধ্যক্ষ আফজাল হোসেন এবং হাক্কানী প্রকাশনা বিভাগের পক্ষে সাপ্তাহিক বর্তমান সংলাপ-এর নির্বাহী সম্পাদক শাহ ড. আলাউদ্দিন আলন কর্মপরিকল্পনা তুলে ধরেন। কর্মশালায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন হাক্কানী বিশেষ দূত মোল্লা হাসানুজ্জামান টিপু, বাহাখাশ-এর প্রধান উপদেষ্টা শাহ মো. লিয়াকত আলী এবং হাক্কানী পৃষ্ঠপোষকম-লির সদস্য ও বাহাখাশ সভাপতি শাহ্ শাহনাজ সুলতানা।

কর্মশালার সভাপতির বক্তব্যে মিশন সভাপতি শাহ্ সূফী ড. মেজবাহ উল ইসলাম সমাপনী বক্তব্যে বলেন, ব্যক্তিগত ও আর্থিক স্বার্থ নিয়ে দ্বন্দ্ব নয়, আদর্শ ধারণ করে আছে বলেই হাক্কানী মিশন বাংলাদেশ চলছে। তিনি বলেন, হাক্কানীতে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দেওয়ার জন্য সকল ধরনের প্রতিকূলতা মোকাবেলা করতে হবে। তিনি কর্ম-মানবতা-শান্তির আদর্শে সূফী সাধক শেখ আবদুল হানিফ-এঁর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান। হামিবা সঙ্গীত পরিবেশনের মধ্য দিয়ে বিকাল ৩ টা ৫৫ মিনিটে কর্মশালা মূলতবী হয়। কর্মশালাটির সার্বিক সঞ্চালনায় ছিলেন হামিবার সাংগঠনিক সচিব ফরিদা খাতুন মনি।